BIGtheme.net http://bigtheme.net/ecommerce/opencart OpenCart Templates
Monday , January 23 2017
Home / অন্যান্য / এমপি লিটন খুন হওয়ায় আমরা ক্ষতিগ্রস্তই হলাম: সৌরভের মা
Loading...

এমপি লিটন খুন হওয়ায় আমরা ক্ষতিগ্রস্তই হলাম: সৌরভের মা

গাইবান্ধা-১ (সুন্দরগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য (এমপি) মনজুরুল ইসলাম লিটনের মৃত্যুতে নিজেদের অপূরণীয় ক্ষতি হয়েছে বলে জানালেন এমপি লিটনের হাতে গুলিবিদ্ধ শিশু সৌরভের মা সেলিনা বেগম।  তিনি আক্ষেপের সঙ্গে বলেন, ‘এমপি লিটন খুন হওয়ায় আমরা ক্ষতিগ্রস্তই হলাম। আমাদের পুরো পরিবারের দায়িত্বই তিনি নিয়েছিলেন। ছেলেদের পড়ালেখা ও স্বামীর ব্যবসাসহ সবকিছুই তিনি দেখবেন বলে জানিয়েছিলেন। এখন তিনি খুন হওয়ায় আমাদের আর কোনও স্বপ্নই পূরণ হলো না।’

দুর্বৃত্তের গুলিতে এমপি লিটনের খুন ও সৌরভের পায়ে গুলির বিষয়ে জানতে চাইলে সেলিনা বেগম বলেন, ‘এক কথায় বলতে গেলে আমরা ক্ষতিগ্রস্তই হয়েছি। কারণ, এমপি লিটন ও তার স্ত্রী স্মৃতি ম্যাডাম ফোনে ঘটনার জন্য দুঃখ প্রকাশ করেছিলেন।  ওই সময় সৌরভের চিকিৎসাসহ আমাদের পুরো পরিবারের দায়িত্ব নিয়েছিলেন। দুই সন্তান শামীম মিয়া ও সৌরভের সারা জীবনের পড়ালেখার দায়িত্ব নিয়েছিলেন তিনি। বলেছিলেন, আমাদের একটি সন্তান। এখন সৌরভসহ দু’টি সন্তান হলো।’

সৌরভের মা সেলিনা বেগম আরও বলেন, ‘এমপি লিটন বলেছিলেন, মামলা প্রত্যাহার করলে নগদ চার লাখ টাকা দেবেন। প্রথমে দুই লাখ পরে মামলা সম্পূর্ণ প্রত্যাহার হলে আরও দুই লাখ দেওয়ার কথা জানিয়েছিলেন। এছাড়া তিনি দুই দফায় ৪০ হাজার টাকা সৌরভের চিকিৎসার জন্য দিয়েছিলেন।’

সৌরভের বাবা সাজু মিয়া গ্রামে-গ্রামে হাঁড়ি-পাতিল বিক্রি করেন উল্লেখ করে সেলিনা বেগম বলেন, ‘‘সৌরভের বাবাকে এমপি লিটন বলেছিলেন, ‘তোমাকে আর হেঁটে-হেঁটে ব্যবসা করতে হবে না।’ তাকে হাঁড়ি-পাতিলের ব্যবসার জন্য টাকা দেবেন বলেও জানিয়েছিলেন।’ ৩১ ডিসেম্বর দুর্বৃত্তের গুলিতে নিহত হওয়ার ১৫-১৬ দিন আগেও এমপি লিটন ফোন করে সৌরভের বাবা-মায়ের সঙ্গে কথা বলেছিলেন বলে জানালেন সেলিনা বেগম।

সৌরভের পায়ে গুলির ঘটনা সম্পর্কে জানতে চাইলে সেলিনা বেগম বলেন, ‘আমরা তো দেখিনি। তবে এমপি নিজেই বলেছিলেন, আত্মরক্ষার্থে তিনি গুলি চালিয়েছিলেন। তার ওই গুলিতে সৌরভ গুলিবিদ্ধ হয়েছে।’

আরও পড়ুন   ভিডিও এডিটিং : সম্ভাবনাময় ক্যারিয়ার

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালের ২ অক্টোবর ভোরে এমপি লিটনের গুলিতে আহত হয়েছিল শিশু সৌরভ। শিশুটি  প্রাথমিক সমাপনী পাস করে এ বছর ষষ্ঠ শ্রেণিতে ভর্তি হয়েছে। ঘটনার সময় গোপালচরণ সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির ছাত্র ছিল সে।

এমপি লিটনের প্রতি তার কোনও ক্ষোভ আছে কিনা—জানতে চাইলে সৌরভ বাংলা ট্রিবিউনকে হাসতে-হাসতে বলে, ‘না। বরং তার মৃত্যুতে আমি কষ্ট পেয়েছি।’ এ সময় সৌরভ জানায়, তার সঙ্গেও মোবাইলে এমপি লিটন কথা বলেছিলেন।

  • বাংলা ট্রিবিউন
Loading...

Leave a Reply